Humayunhkhan_1008 এর ব্লগ

নবাবগঞ্জ উপজিলা বিএনপির রাজনীতি ও খমতা ভাগা ভাগীর মহা উৎসব।

______________________________ নবাবগঞ্জ উপজেলা বিএনপি-তে লোভ আর লালসার রাজনীতি চলছে। ক্ষমতা ভোগের লড়াই, চেয়ার নিয়ে টানাটানি চলছে হরদম। নেতৃত্ব মানছেনা কেউ। মূলদল-যুবদল-ছাত্রদল যে যার মনের মতো গ্রীবের লোক দিয়ে, পয়সা ওয়ালা লোক দিয়ে নিজ নিজ মর্জিতে কমিটি তৈরী করছে। কাউন্সিল ছাড়াই এসব চলছে হরদম। পুলিশের উপর জনগনের আস্থা যেমন তলানিতে ঠেকেছে, তেমনি দলীয় কর্মীদের, নেতাদের প্রতি আস্থা এবং বিশ্বাস দিনদিন হারিয়ে যােচছ। দেশের এই অস্থির পরিস্থিতিতে সংগ্রাম আন্দলনকে এগিয়ে নিতে ঐক্যের বিকল্প নেই। আমি শুধু

লায়ন্স ক্লাব ঢাকা রোজ কৃতক আয়োজিত নবাবগঞ্জ উপজিলা,জয়কৃস্ন পুর ইউনিয়নে,বিনা মূল্য চক্ষু চিকিৎসার উদ্বোধন।

গত ১৩/২/২০১৬ ইং,রোজ শনিবার নবাবগঞ্জ উপজিলা জয়কৃস্ন পুর ইউনিয়নে,লায়ন্স ক্লাব ঢাকা রোজ কৃতক আয়োজিত বিনা মূল্য চক্ষু চিকিৎসার শুভ উদ্ভোন। চক্ষু শিবিরের শুভ উদ্ভোন করেন সাবেক সভাপতি,যুবদল ঢাকা জিলা,সাবেক সভাপতি,যুবদল নবাবগঞ্জ উপজিলা,বত'মানে বিএনপির জাতীয় নিবা'হী কমিটির অন্যতম সদস্য,উপ জিলা ফোরাম বিএনপির আহবায়ক,এবং দুই দুইবার বিপুল ভোটে জয়ী একজন সফল উপজিলা চেয়ারম্যান লায়ন খন্দকার আবু আশফাক। এতে আরো উপস্তিত ছিলেন জয়কৃস্ন পুর ইউনিয়নের বিএনপি সভাপতি,হাজী মাসুদ,ছাএ দলের যুগ্ন সম্পদক শেখ আহাদ মিয়া,এবং

নবাবগঞ্জ উপ জিলা বিএনপি যুব দল আয়োজিত মত বিনিময় সভা।

আজ শুক্রবার ১২/২/২০১৬ ইং। নবাবগঞ্জ উপজিলা যুব দলের উদ্দোগে এক মত বিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। এতে উপস্তিত ছিলেন নবাবগঞ্জ উপজিলা যুব দলের সাধারন সম্পদক,পবন মাহমুদ সহ অন্যান্য নেতা ও কমী'বৃন্দ। সভায় আলোচনার বিষয় ছিল,যুব দলকে কি ভাবে আরো শক্তিশালী করা যায়। এবং বিএনপির ৬ষঠ তম কাউন্সিলের পর আন্দোলনের রুপরেখা অনুযায়ী যুব দলকে জোরালো ভূমিকা রাখার জন্য আহবান করা হয়। এবং যুব দলকে একটি সু সংগঠিত দল হিসেবে গঠন করা। যাতে যে কোন আন্দোলনে একটি ইতিবাচক ভূমিকা পালন করতে পারে। বত'মানে দেশে যে অগনতান্ত্রীক শাসন ব

আওয়মীলিগের দালাল থেকে রেহাই পাচেছ না নবাবগঞ্জ থানার বিএনপির নেতা কমী'রা।

ঢাকা-১ নবাবগঞ্জ থানার বিএনপি নেতা কমী'দেরকে, আওয়ামীলিগের কিছু মুখোশ ধারী দালালেরা,বিভিন্ন ভাবে মিথ্যা মামলা করে পুলিশ দিয়ে হয়রানী করছে। এমনকি তাদেরকে ধরার পর মাদক দ্রব্য ও lnmmঅস্র দিয়ে বলা হচেছ এরা মাদক ব্যাবসায়ী এবং সন্ত্রাসী। বত'মানে আওয়ামীলিগের দালালেরা তিন গ্রুপে বিভক্ত হয়ে কাজ করছে। গ্রুপ (১)এর কাজ হচেছঃ তথ্য সংগ্রহ করা। যেমনঃ বিএনপির নেতাকমী'রা কে কোথায় আছে এবং কি করতেছে এসব খবর নেয়া। গ্রুপ (২) এর কাজ,এরা পুলিশকে ফোন করে ধরিয়ে দেয়। এবং গ্রুপ (৩)এরা আবার আসামীদের (মিথ্যা আসামী)বাড়ীতে গি

নবাবগঞ্জ থানা শোল্লা ইউনিয়নের বিএনপি যুব দল ও ছাএ দলের উঠান বৈঠক।

গত ৫-২-২০১৬ ইং শুক্রবার, নবাবগঞ্জ থানার যুব দলের সাধারন সম্পদক পবন মাহমুদের নেএীতে'শোল্লা ইউনিয়নের যুব দল ও ছাএ দলের নেতা কমী'দেরকে সাথে নিয়ে,এক উঠান বৈঠকের আয়োজন করে। এবং আগামীদিনে কি ভাবে দলকে আরো শক্তিশালী করা যায়,এবং দেশের গনতন্র ফিরিয়ে এনে গনতন্র সরকার প্রতিষঠার লক্ষে সবাইকে ঐক্যবদ্দ হয়ে কাজ করার জন্য আহবান জানানো হয়।

অভি নন্দন।

পৃষ্ঠাসমূহ